Coming soon

If you want to start new garden. First you buy some earthen tubs.thena a hole the bottom of the tub.it is needed for drainage.

এরপর টবের ছিদ্রটির ওপরে কিছু ভাঙা টবের টুকরো অথবা ইটের টুকরো দিতে হবে যাতে জল ঠিকভাবে নিষ্কাশন হয় এবং মাটিও বেরিয়ে না যায়।

মাটি কেমন হওয়া উচিত- মাটির মধ্যে নুড়ি পাথর থাকলে সেগুলি বের করে ফেলতে হবে, মাটিকে শুকনো ঝুরঝুরে করে নিতে হবে। মাটির তিনভাগের একভাগ ভার্মি কম্পোস্ট অথবা গোবর সার মিশিয়ে নিতে হবে। টবে মাটি ভরার সময় ১ ইঞ্চি মত ছেড়ে মাটির ভরতে হবে। ভার্মি কম্পোস্ট যেকোনো নার্সারিতে পাওয়া যায়। যেইসব গাছগুলি খুব সহজেই লেগে যায় যেমন- পাথরকুচি ,অ্যালোভেরা ,নয়ন তারা ,পুদিনা ,তুলসী ইত্যাদি গাছ থেকে শুরু করতে পারো। এইসব গাছ চট করে লেগে যায় এবং মরে না সহজে। অবশ্যই একটি খুরপী কিনে নেবে মাঝে মাঝে মাটি খুঁড়ে গোড়াগুলি আলগা করে দিতে হয়। গাছে জল দেবার সময় খেয়াল রাখতে হবে ,চারা অবস্থায় যখন গাছ থাকে তখন জল ছিটিয়ে ছিটিয়ে দিতে হয় ।ঘরে পুরনো জলের বোতল থাকলে তার মুখে বেশ কিছু ছিদ্র করে নিয়ে তার মধ্যে জল ভরে দিতে সুবিধা হয় ।এছাড়াও ইনডোর প্ল্যান্ট কিছু লাগাতে পারো যেমন -স্নেক প্ল্যান্ট, মানিপ্লান্ট, লেডি পাম এরা খুব সহজেই বেঁচে থাকে ,অল্প পরিমাণ আলো আর পরিমিত জল পেলেই এটা বেঁচে থাকে। এছাড়া তুমি জার্মিনেশনও করতে পারো যেসব ফল ও সবজির বীজ আমরা ফেলে দিই সেসব দিয়ে যেমন- চাল কুমড়ো ,মিষ্টি কুমড়ো ,পেঁপে ,লঙ্কা ,উচ্ছে এসব বীজগুলিকে শুকিয়ে নিয়ে ,একদিন ভিজিয়ে রেখে চ্যাপ্টা ধরনের গামলা বা টবে কিছুটা মাটি দিয়ে তারপর বীজগুলির ওপর মাটি চাপিয়ে দিতে হবে। এরপর স্পিঙ্কাল ভাবে জল দিয়ে যেতে হবে। কিছুদিনের পর দেখবে চারা বেরিয়ে গেছে ।তোমার ঘরের সামনে যদি বাগান থাকে তবে তো তুমি নানা রকম গাছ লাগাতে পারো ।শীতকালে সিজন ফ্লাওয়ার হয়, কিছু শীতকালীন সবজি। বারোমাস যেসব গাছগুলো হয়। কিছু ফুল গাছ যেমন -জবা, টগর ,কামিনী, চাপা, গোলাপ ।কিছু ফল গাছ যেমন- পেয়ারা ,আম, পেঁপে। যখন নিজের হাতে লাগানো গাছ বৃদ্ধি পাবে ফল ফুল হবে তখন অটোমেটিক গাছ লাগানোর প্রতি ইন্টারেস্ট জন্মাবে ।এছাড়া সামাজিকভাবে কিছু উপকার করতে পারি এই গরমে আমরা যে ফলগুলি খাই, যেমন আম, লিচু, কাঁঠাল ,জাম এই ফলের বীজগুলি না ফেলে দিয়ে, বীজগুলিকে শুকিয়ে নিয়ে রেখে দিতে হয়। বর্ষার আগে বা বর্ষার সময় কোথাও গাড়িতে করে ঘুরতে যাচ্ছ যেসব জায়গায় দেখবে গাছ নেই রুক্ষ। সেসব জায়গায় এই বীজগুলো ফেলে দেবে। বর্ষার জলে গাছগুলি অটোমেটিক তৈরি হয়ে যাবে।

Leave a Reply